বিকাশ একাউন্ট থেকে সুদ গ্রহণ বন্ধ করার উপায়

আপনি কি জানেন আপনার বিকাশ একাউন্ট থেকে সুদ পাওয়ার অপশন রয়েছে? আরো জেনে অবাক হবেন যে এই ফিচারটি প্রতিটি বিকাশ একাউন্টে ডিফল্টভাবে চালু থাকে। একাউন্টে থাকা টাকার উপর সুদ পাওয়ার এই ফিচারকে বলা হয় বিকাশ ইন্টারেস্ট।

তবে ভালো ব্যাপার হচ্ছে আপনি চাইলেই এটি বন্ধ করতে পারেন। বিকাশ একাউন্টে সুদ গ্রহণ বন্ধ করার উপায় অর্থাৎ বিকাশ ইন্টারেস্ট বন্ধ করার উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিন এই পোস্টে।

বিকাশ ইন্টারেস্ট কি

বিকাশ একাউন্ট থেকে সুদ গ্রহণ বন্ধ করার উপায়

বিকাশ একাউন্টে আমরা কমবেশি সবাই টাকা রাখি। মূলত ভার্চুয়াল লেনদেনের জন্য বেশ সুবিধাজনক বিকাশ এর মত মোবাইল ব্যাংকিং সেবাগুলি। আবার একজন গ্রাহক তার একাউন্টে রাখা টাকার উপর ৪% পর্যন্ত ইন্টারেস্ট বা সুদ পাওয়ার অপশন রেখেছে বিকাশ।

একাউন্টে থাকা স্থায়ী ব্যালেন্সের উপর ইন্টারেস্ট বা সুদের হার নির্ভর করে। যেমনঃ

  • ১,০০০-৫,০০০.৯৯টাকার জন্য ১.৫%
  • ৫,০০১ –১৫,০০০.৯৯টাকার জন্য ২%
  • ১৫,০০১ – ৫০,০০০.৯৯টাকার জন্য ৩%
  • ৫০,০০১ এবং এর অধিক অর্থের জন্য ৪%

এই বিকাশ ইন্টারেস্ট এর ব্যাপারটি একটি উদাহরণের মাধ্যমে বুঝে নেওয়া যাক। ধরুন আপনার বিকাশ একাউন্টে একটি মাসজুড়ে কমপক্ষে এক হাজার টাকা থাকে, ঐ মাসে ২টি লেনদেন এর পাশাপাশি গড় ব্যালেন্স ১,০০০ থেকে ৫,০০০.৯৯টাকার মধ্যে তাহলে ১.৫% বাৎসরিক হারে সুদ পাবেন উক্ত বিকাশ ব্যবহারকারী।

[★★] বিকাশের পিন ভুলে গেলে বিকাশের পিন রিসেট করবেন যেভাবে শিখে রাখুন

যেসব একাউন্টের কেওয়াইসি ফর্ম পূরণ করা হয়েছে ও মাসে কমপক্ষে ২টি লেনদেন, যেমনঃ ক্যাশইন, ক্যাশআউট, সেন্ডমানি, মোবাইল রিচার্জ, ইত্যাদি করা হয়েছে; তারা পাবেন বিকাশ ইন্টারেস্ট।

তবে বিকাশ ইন্টারেস্ট পেতে হলে মাসজুড়ে প্রতি দিন শেষে একাউন্টে কমপক্ষে এক হাজার টাকা থাকা বাধ্যতামূলক। মাসশেষে প্রতিদিনের গড় বিকাশ একাউন্ট ব্যালেন্সের উপর প্রাপ্ত সুদের পরিমাণ নির্ভর করে। প্রতি বছর দুই কিস্তিতে ভ্যাট ও ট্যাক্স কেটে নিয়ে প্রাপ্য সুদ বিকাশ একাউন্টে জমা হয়।

উল্লেখ্য যে উপরোল্লিখিত নিয়মগুলো যেসব একাউন্ট অনুসরণ করবে, সেসব একাউন্টের ক্ষেত্রে নতুন হোক বা পুরোনো গ্রাহক, সকলেই পাবে বিকাশ ইন্টারেস্ট। বিকাশ ইন্টারেস্ট বা বিকাশ সুদ চালু করতে কিছুই করতে হয় না। এই ফিচারটি প্রত্যেক বিকাশ একাউন্টে ডিফল্টভাবে চালু থাকে।

বিকাশ পিন লক হলে করণীয়

বিকাশ ইন্টারেস্ট বন্ধ করার নিয়ম – বিকাশ সুদ বন্ধ করার উপায়

আপনি যদি এই পোস্টে ক্লিক করে থাকেন, তবে নিশ্চয়ই বিকাশ একাউন্টের সুদ বন্ধ করার উদ্দেশ্যেই ক্লিক করেছেন। খুব সহজে বিকাশ একাউন্টে সুদ গ্রহণ বন্ধ করা যাবে। বিকাশ একাউন্টে সুদ গ্রহণ বন্ধ করতেঃ

  • যে নাম্বারে বিকাশ একাউন্ট আছে, ঐ নাম্বার থেকে 16247 এ ডায়াল করুন
  • বাংলা ভাষার জন্য 1 ও ইংরেজি ভাষার জন্য 2 সিলেক্ট করুন
  • তথ্য জানতে 5 চাপুন
  • এরপর ইন্টারেস্ট সংক্রান্ত তথ্যের জন্যে 1 চাপুন
  • বিকাশ ইন্টারেস্ট বা সুদ বন্ধ করতে 1 চাপুন

বিকাশ একাউন্টের সুদ বন্ধ করার আবেদন গৃহীত হলে তা এসএমএস এর মাধ্যমে জানতে পারবেন। উল্লেখিত প্রক্রিয়া সঠিকভাবে অনুসরণ করলে জমানো টাকার উপর আপনার বিকাশ একাউন্টে আসা সুদ বন্ধ করতে পারবেন।

Add Comment

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুনলাইক ফেসবুক
+ +