বিকাশ, নগদ, রকেট সহ সব MFS ও ব্যাংকে পারস্পরিক লেনদেন চালু হচ্ছে

অবশেষে শুরু হচ্ছে মোবাইলে আর্থিক সেবাদাতা (এমএফএস) প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে পারস্পরিক লেনদেন ব্যবস্থা। পাশাপাশি মোবাইল ভিত্তিক আর্থিক সেবা যেমন বিকাশ, নগদ, রকেট প্রভৃতি থেকে যে কোনো মূল ব্যাংকের সঙ্গেও লেনদেন করা যাবে। বাংলাদেশ ব্যাংক এই ব্যাপারে সম্প্রতি একটি সার্কুলার প্রকাশ করেছে।

বাংলাদেশে কার্যরত সকল তফসিলি ব্যাংক এবং মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস (এমএফএস) এর প্রধান নির্বাহীদের কাছে প্রেরণকৃত ঐ সার্কুলারে বলা হয়েছে, সফলভাবে পাইলট টেস্টিং সম্পন্নকারী ব্যাংক ও এমএফএস প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ২৭ অক্টোবর ২০২০ মঙ্গলবার থেকে পারস্পরিক লেনদেন সুবিধা চালু করা হবে। (আপডেট, ২৭ অক্টোবর ২০২০- সেবাটি চালু হয়নি। কবে নাগাদ হবে তা এখনই নিশ্চিত না)

যে সব ব্যাংক ও এমএফএস এখনও পারস্পরিক লেনদেন সংক্রান্ত প্রস্তুতি সম্পন্ন করতে পারেনি, তাদের ২০২১ সালের ৩১ মার্চের মধ্যে প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন করার সময় দেওয়া হয়েছে।

বর্তমানে এক ব্যাংক একাউন্ট থেকে অন্য ব্যাংক একাউন্টে টাকা পাঠানো যায়। কিন্তু এতদিন একটি মোবাইল আর্থিক সেবা থেকে অন্য মোবাইল আর্থিক সেবায় টাকা পাঠানো যেত না। অর্থাৎ এতদিন বিকাশ গ্রাহকরা নগদ বা রকেট একাউন্টে, রকেট গ্রাহকরা বিকাশ বা নগদ একাউন্টে, নগদ গ্রাহকরা বিকাশ বা রকেট একাউন্টে টাকা পাঠাতে পারতেন না। পারস্পরিক লেনদেন ব্যবস্থা চালু হলে সেটি সম্ভব হবে।

ইতোমধ্যেই বিকাশ, রকেট ও নগদ ব্যাংক থেকে টাকা গ্রহণের সুবিধা চালু করেছে। বিকাশ থেকে বিভিন্ন ব্যাংকে টাকা পাঠানো যায়। একাধিক ব্যাংক থেকে বিকাশে টাকা নেয়ার সুবিধাও চালু আছে। এছাড়া কার্ড থেকেও বিকাশে টাকা পাঠানো সম্ভব।

ন্যাশনাল পেমেন্ট সুইচ বাংলাদেশ (এনপিএসবি) এর মাধ্যমে ব্যাংক ও এইসব এমএফএস সার্ভিস প্রোভাইডার একত্রে কাজ করবে।

গত বৃহস্পতিবার প্রকাশিত এই সার্কুলারে আন্তঃলেনদেন সংক্রান্ত সুবিধা চালুর ঘোষণার পাশাপাশি এই সংক্রান্ত ফি ও নিয়ম ও জানিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

bb-mfs-interoperability-notice

এক এমএফএস (যেমন বিকাশ) থেকে অন্য এমএফএস (যেমন নগদ) এ অর্থ প্রেরণের ক্ষেত্রে সাকুল্যে লেনদেনকৃত অর্থের ০.৮০ শতাংশ ফি প্রযোজ্য হবে, যা প্রাপক সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান প্রেরক সেবাদাতার কাছ থেকে পাবে। আবার ব্যাংক ও এমএফএস ফার্ম এর মধ্যকার লেনদেনের ক্ষেত্রে ব্যাংক সবসময় এমএফএসের কাছ থেকে সাকুল্যে লেনদেনের ০.৪৫ শতাংশ ফি পাবে।

আরো পড়ুনঃ বিকাশ অফার জানতে ভিসিট করুন

আপাতত এই নতুন লেনদেন ব্যবস্থায় গ্রাহকদের জন্য বাড়তি কোনো ফি যোগ হবেনা, এবং মোবাইল ব্যাংকিং সেবাগুলো থেকে টাকা তোলার খরচ পূর্বের ন্যায়ই থাকছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের সার্কুলার অনুযায়ী, এই পারস্পরিক অর্থ লেনদেনের ক্ষেত্রে অংশগ্রহণকারী এমএফএস ও ব্যাংক গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যমান লেনদেন ফির অতিরিক্ত কোনও ফি ধার্য করতে পারবে না।

যে ব্যাংক ও এমএফএস প্রতিষ্ঠানগুলো সফলভাবে লেনদেন ব্যবস্থা পরীক্ষা করে শেষ করেছে তারা ২৭ অক্টোবর থেকেই লেনদেন চালু করবে। আর যারা এখনো এই সুবিধা চালু করতে তৈরী না, তাদের ২০২১ সালের ৩১ মার্চ পর্যন্ত সময় দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।এর মধ্যে তাদেরকেও সুবিধাটি চালু করতে হবে।

Add Comment

সরাসরি ক্রিকেট বিশ্বকাপ খেলা দেখুন ফ্রীতেWatch Now