ওয়াইফাই স্পিড বাড়ানোর সহজ উপায়!

তথ্য প্রযুক্তির উৎকর্ষতায় ইন্টারনেট এখন প্রায় নিত্যপ্রয়োজনীয়। অফিস হোক বা বাড়ি, সোশ্যাল মিডিয়া বা মেইল চেক করা, সব ক্ষেত্রে ইন্টারনেটের প্রয়োজন। তাই ওয়াইফাই রাউটারের চাহিদা এখন দিন দিন বাড়ছে।

তবে রাউটার বসালেও বেশ কিছু কারণে ইন্টারনেটের স্পিড ভালো নাও পেতে পারেন। তাই ওয়াই-ফাই স্পিড বাড়ানোর জন্য নিচের বিষয়গুলো মাথায় রাখলে ভালো ইন্টারনেট স্পিডও পাওয়া সম্ভব।

প্রতিদিন অন্তত ১০ মিনিট বন্ধ রাখতে হবে রাউটার:

মাঝে মাঝে রাউটারের স্পিড কমে যায় আমাদের অজান্তেই। ফলে ইন্টারনেটের স্পিডও কমে যায়। সেক্ষেত্রে রাউটারের স্পিডের কোনও সমস্যা রয়েছে কি না, তা ট্রাবলশুটিং উইজার্ড চালিয়ে দেখে নেয়া যায়। সেই সমস্যার সমাধানে নতুন করে রাউটারের সেটিংস আবার চালু করলে, রাউটারটি আবার পুরনো ছন্দে অনেক ভালো স্পিডেই কাজ শুরু করবে। এ ছাড়াও প্রতিদিন নিয়ম করে কাজে বসার আগে বা পরে অন্তত ১০ মিনিটের জন্য বন্ধ রাখতে হবে রাউটার।

রাউটারের স্থান নির্ধারণ:

টিভির সামনে এবং ডেস্কটপ বা ল্যাপটপের সামনে রাউটার রাখা যাবে না। কারণ এসব স্থানে রাউটার রাখলে ইন্টারনেটের সঠিক স্পিড পেতে সমস্যা হতে পারে। কারণ ইলেকট্রোম্যাগনেটিক তরঙ্গ রাউটারের ইন্টারনেটের গতি অনেকখানিই কমিয়ে দেয়। তাই টিভি, ল্যাপটপ-ডেস্কটপ বা যেখানে বসে আপনি মোবাইল থেকে ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন, সেখান থেকে বেশ কিছুটা দূরত্বে রাখুন আপনার রাউটার।

নিরাপদ পাসওয়ার্ড ব্যবহার:

অনেক ডিভাইস কানেক্ট করলে রাউটারের স্পিড কমে যায়, ফলাফল ধীর ইন্টারনেট গতি। তাই কম ডিভাইস সংযুক্ত করতে হবে এবং নিরাপদ একটি পাসওয়ার্ড দিয়ে অটো ডিভাইস কানেক্ট বন্ধ করে দিতে হবে।

রিপিটার কানেক্ট করুন:

ওয়াই-ফাই স্পিড বেশ কিছুটা বাড়িয়ে দেবে রিপিটার। বাজারে এবং অনলাইন শপিং সাইটে বহু রিপিটার পাওয়া যাবে। দাম মোটামোটি ১০০০ টাকা থেকে শুরু। কনফিগার করাও খুব সহজ। বাড়িতে যদি পুরনো কোনও ভালো রাউটার থাকে সেটাও রিপিটার হিসাবে ব্যবহার করা যেতে পারে। তবে এর জন্য সেটিং পেজে গিয়ে কনফিগার করে নিতে হবে।

ভিপিএন ব্যবহার বন্ধ করতে হবে:

অনেক সময় অফিসের কাজের জন্য ভিপিএন ব্যবহার করা বাধ্যতামূলক হয়ে যায়। এই ভিপিএন ব্যবহারে সমস্যা হচ্ছে, এটি ইন্টারনেটের স্পিড অনেকটাই কমিয়ে দেয়। তাই কাজের ক্ষেত্রে যদি ভিপিএন ব্যবহার বাধ্যতামূলক হয়ে দাঁড়ায়, তাহলে তা ব্যবহার করার পর অবশ্যই বন্ধ করে দিতে হবে। কিন্তু কাজের ক্ষেত্রে কোনও ভিডিয়ো কল বা কনফারেন্সের জরুরি দরকার হলে ভিপিএন বন্ধ রেখেই তা করতে পারেন। তাতে কনফারেন্সে কোনও সমস্যা হবে না। বাড়বে ইন্টারনেটের গতিও।

USB রাউটার ব্যবহার করুন:

রাউটার কেনার আগে দেখে নিন তাতে USB পোর্ট আছে কিনা। কারণ USB পোর্ট থাকলে তাতে এক্সটার্নাল হার্ড ড্রাইভ কানেক্ট করতে পারেন। এটা নেটওয়ার্ক স্টোরেজের মতো কাজ করবে সমস্ত কানেক্টেড ডিভাইসের জন্য। অথবা প্রিন্টারও কানেক্ট করতে পারেন। এতে কোনও একটি ডিভাইসের সঙ্গে কানেক্ট করার প্রয়োজন পড়বে না। নেটওয়র্কে থাকা যে কোনও ডিভাইস থেকে প্রিন্ট দেওয়া যাবে। সাধারণত এ ধরনের রাউটার বেশ শক্তিশালী হয়। তাতে সিগনালও বেশ ভালো পাওয়া যায়।

Source: mytv

Add Comment

FIFA World Cup Live StreamingWatch Now