আসছে ভাষা দিবস ২১ শে ফেব্রুয়ারি ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনের সংক্ষিপ্ত তাৎপর্য

আসছে ২১শে ফেব্রুয়ারিঃভাষা আন্দোলনের সংক্ষিপ্ত তাৎপর্য 

১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনের সংক্ষিপ্ত তাৎপর্য 

সোনালী সূর্যের দেশ বাংলাদেশ। এদেশের মাতৃভাষা হলো বাংলা। আমরা বাংলা ভাষায় কথা বলতে পারে।মাকে “মা” বলে ডাকতে পারি।আর স্বাধীন ভাবে বাঁচতে ও স্বপ্ন দেখতেও পারি।তবেই এইযে এতো কিছু পাওয়ার পিছনে অনের বড় একটা রহস্য আছে।আমাদের এই বাংলা ভাষা এমনিতেই আসে নি।এসেছে হাজারও ভাষা শহিদের রক্তের বিনিময়ে। ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনই হলো বাংলা ভাষার সূএপাত।

ভাষা আন্দোলনের সংক্ষিপ্ত তাৎপর্য 

 

১৯৪৮ সাল

মোহাম্মদ জিন্না যখন রেসকোর্স ময়দানে ঘোষণা দিলো-“state language of Pakistan is going to be Urdu “and no other language”এই বার এই বাংলা ভাষাকে বাঁচতে তখন থেকেই বাংলার মানুষেরা রাগে ফুসে উঠে।শুরু হয় মাতৃভাষা বাংলা করার লড়াই। রাস্তায় নেমে আসে হাজার মানুষের মিছিল।স্লোগানে মেতে উঠে বাংলার দামাল সন্তানের। ” রাষ্ট্র  ভাষা বাংলা চাই, মাকে বা বলেই ডাকতে চাই।”

তাদের এই সুদীর্ঘ মিছিলে প্রাণ হারায় অনেক বাংলার সন্তান।আর ঐ রাতেই তাদের স্মরণে তৈরি হয় শহীদ মিনার।টিক সেই জায়গায় আজও দাঁড়িয়ে আছে বাংলার ভাষা শহিদের মিনার।সে থেকেই ২১শে ফেব্রুয়ারিতে আজও আমরা ভাষা শহিদের সরণেখালি পায়ে শহিদ মিনারে ফুল দিয়ে সরণ করি।

Add Comment

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুনলাইক ফেসবুক
+ +