ওয়ানপ্লাসের সবচেয়ে কম দামের ফোন বাজারে

ওয়ানপ্লাসকে বলা হয় অ্যান্ড্রয়েডের আইফোন। আবার ওয়ানপ্লাসকে গরিবের আইফোনও বলা হয়ে থাকে। স্যামসাং এর পর অ্যান্ড্রয়েডে সবচেয়ে ভালো ব্র্যান্ডেড ফোন হিসাবে ওয়ানপ্লাসকেই অনেকে মনে করে থাকেন।

নতুন ওয়ানপ্লাস নর্ড সিই২ ৫জি ফোনে রয়েছে একটি মিডিয়াটেক Dimensity ৯০০ প্রসেসর। এছাড়াও এই ফোনের ব্যাক প্যানেলের ট্রিপল রেয়ার ক্যামেরা সেটআপে রয়েছে একটি ৬৪ মেগাপিক্সেলের প্রাইমারি সেনসর। অ্যানড্রয়েড ১১ আউট অফ দ্য বক্স সাপোর্ট রয়েছে।

ওয়ানপ্লাসের সবচেয়ে কম দামের ফোন বাজারে

ডুয়াল সিমের (ন্যানো) এই ফোনে রয়েছে অ্যানড্রয়েড ১১ এবং অক্সিজেনওএস ১১- র সাপোর্ট। এই দুইয়ের সাহায্যেই পরিচালিত হবে ওয়ানপ্লাস নর্ড সিই২ ৫জি ফোন। একটি ৬.৪৩ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস ফ্লুইড অ্যামোলেড ডিসপ্লে রয়েছে এই ফোনে, যার রিফ্রেশ রেট ৯০ হার্টজ। HDR10+ সাপোর্ট রয়েছে এই ডিসপ্লেতে। আর স্ক্রিন প্রোটেক্টর হিসেবে রয়েছে গোরিলা গ্লাস ৫ প্রোটেক্তর।

আরো পড়ুনঃ ইন্টারনেট ছাড়াই গুগল ম্যাপ ব্যবহারের উপায়

ওয়ানপ্লাস নর্ড সিই২ ৫জি ফোনে রয়েছে একটি অক্টা-কোর মিডিয়াটেক Dimensity ৯০০ প্রসেসর। তার সঙ্গে যুক্ত রয়েছে ৮ জিবি পর্যন্ত LPDDR4X র‍্যাম।

এই ফোনের ট্রিপল রেয়ার ক্যামেরায় ৬৪ মেগাপিক্সেলের প্রাইমারি সেনসরের সঙ্গে রয়েছে একটি ৮ মেগাপিক্সেলের আলট্রা ওয়াইড অ্যাঙ্গেল ক্যামেরা (১১৯ ডিগ্রি ফিল্ড অফ ভিউ), ২ মেগাপিক্সেলের ম্যাক্রো ক্যামেরা। এছাড়া ফোনের ডিসপ্লেতে ১৬ মেগাপিক্সেলের সোনি IMX471 সেলফি ক্যামেরা সেনসরও রয়েছে।

আরো পড়ুনঃ ফেসবুক প্রোফাইল থেকে টাকা আয়ের উপায়

ওয়ানপ্লাস নর্ড সিই২ ৫জি ফোনে রয়েছে ১২৮ জিবির UFS 2.2 স্টোরেজ। মাইক্রো এসডি কার্ডের সাহায্যে তা ১টিবি পর্যন্ত বাড়ানো যায়। কানেক্টিভিটি অপশন হিসেবে এই ফোনে রয়েছে ৫জি, ৪জি এলটিই, ওয়াই-ফাই ৬, ব্লুটুথ ৫.২, এনএফসি, জিপিএস সাপোর্ট। এছাড়াও রয়েছে ৩.৫ মিলিমিটারের একটি হেডফোন জ্যাক।

এই ফোনে ৪৫০০ এমএএইচ ব্যাটারি রয়েছে। তার সঙ্গে রয়েছে ৬৫ ওয়াটের সুপার VOOC ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট। টাইপ-সি ইউএসবি পোর্টের সাহায্যে চার্জ দেওয়া সম্ভব। ফোনের ওজন ১৭৩ গ্রাম।

Add Comment

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুনলাইক ফেসবুক
+ +