ভাবসম্প্রসারণ লেখার নিয়ম দেখুন। শিখুন কিভাবে ভাবসম্প্রসারণ লেখা উচিত।

ভাবসম্প্রসারণ লেখার নিয়ম দেখুন।

ভাবসম্প্রসারণ লেখার ক্ষেত্রে কিছু নিয়ম রয়েছে। আজকে আমরা এই সব নিয়ম গুলো নিয়ে আলোচনা করব। ভাবসম্প্রসারণ লেখার নিয়ম গুলো সম্পর্কে জানার আগে চলুন আমরা জেনে আসি, ভাবসম্প্রসারণ কি? এই topic নিয়ে আমারা আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি আমি কি ভুলিতে পারি ভাবসম্প্রসারণে একটু গভীর আলোচনা করেছি। আজকে আমরা ঐ আলোচনা গুলোর কিছু অংশ ভাবসম্প্রসারণ লেখার নিয়ম নামের আজকের এই পোস্টটিতে তুলে ধরব।

ভাবসম্প্রসারণ কি?

ভাবসম্প্রসারণ লেখার নিয়মে, ভাবসম্প্রসারণ কথাটির অর্থ হচ্ছে কোন কবিতা বা গদ্যের একটি গভীর ভাবসমপন্ন‌ কথার ভাবটাকে সম্প্রসারিত করা। যখন আমরা এই ভাবটাকে সম্প্রসারিত করব তখন সেটাই হবে ভাবসম্প্রসারণ। আশা করি আপনারা বিষয়টি বুঝেছেন। ভাবসম্প্রসারণ কি? সেটা আগে জানালাম কারণ ভাবসম্প্রসারণ লেখার নিয়ম সম্পর্কে জানার আগে ভাবসম্প্রসারণ কি সেটা জানা আবশ্যক। এটা নিয়ে লোভে পাপ পাপে মৃত্যু ভাবসম্প্রসারণে আলোচনা করা হয়েছে।

এখন কথা হলো একটা বাকের মধ্যে অন্তর্নিহিত ভাবটিকে সুশৃঙ্খল ভাবে তো বিন্যস্ত করা চাই, নাকি? তাহলে এই বিন্যস্তকরণের কাজটিকে কিভাবে করব? এর উত্তর হলো: এই কাজটিকে করার জন্য যে সুশৃঙ্খল নিয়মের কথা বলা হয়েছে সেটাই হলো ভাবসম্প্রসারণ লেখার নিয়ম।

ভাবসম্প্রসারণ লেখার জন্য সেই সব বহু প্রতিক্ষীত নিয়ম

ভাবসম্প্রসারণ লেখার সময় কিছু বিষয়ের প্রতি দৃষ্টি দেওয়া উচিত। ঐ গুলোকে ভাবসম্প্রসারণ লেখার নিয়ম হিসেবে ধরলে খুব বেশি ভুল হবে না। তো চলুন সেই ভাবসম্প্রসারণ লেখার নিয়ম গুলো দেখে আসি।

১| সর্বপ্রথমেই প্রশ্নে দেওয়া সেই কবিতাংশ বা গদ্যের অংশটিকে একাধিকবার মনোযোগ সহকারে পড়তে হবে। এর মূল উদ্দেশ্য হলো: সেই বিশেষ ভাব সম্পন্ন ভাবটি দ্বারা কি বোঝানো হয়েছে সেটা উপলব্ধি করা। উদাহরণ:

যেমন কর্ম তেমন ফল, এই কথাটা একাধিক মনোযোগ সহকারে পড়লে তোমারা সহজেই বুঝতে পারবে যে এখানে কর্ম আর কর্ম ফলের মধ্যে সম্পর্ক টা বোঝানোর চেষ্টা করা হয়েছে।

২| ভাবসম্প্রসারণের প্রথমে মূল কথাগুলো কয়েক লাইনের মধ্যে লিখতে হবে, এরপর সেই লুকিয়ে থাকা ভাবটিকে বিস্তারিতভাবে বর্ণনা করতে হবে। পরিশেষে ভাবসম্প্রসারণটি সম্পর্কে মন্তব্য যোগ করতে হবে। উদাহরণ হিসেবে আপনারা সময় স্রোত কারো জন্য অপেক্ষা করে না ভাবসম্প্রসারণটি দেখে আসতে পারেন।

৩| ভাবসম্প্রসারণ লেখার সময় লক্ষ্য রাখতে হবে যে, যাতে একই বক্তব্যের পুনরাবৃত্তি না ঘটে।

৪| সহজে ও সংক্ষেপে সেই ভাবটাকে বর্ণনা করা উচিত।

আমাদের দেওয়া ভাবসম্প্রসারণ লেখার নিয়ম গুলোর উদাহরণ হিসেবে আপনারা বন্যেরা বনে সুন্দর শিশুরা মাতৃক্রোড়ে ভাবসম্প্রসারণটি দেখে আসতে পারেন সেখানে ভাবসম্প্রসারণ লেবেলের পোষ্ট গুলো দেখতে পারেন সেখানে ভাবসম্প্রসারণ নিয়ে অনেক আলোচনা করা হয়েছে।

Add Comment

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুনলাইক ফেসবুক
+ +