Why Bengali Keyboard is every Millenial’s favourite | বাংলা কিবোর্ড

কেন বাংলা কিবোর্ড ব্যবহার করবেন?

বাংলা বিশ্বে বহুল ব্যবহৃত অন্যতম একটি ভাষার নাম। বর্তমানে এ ভাষায় বাইশ কোটির অধিক মানুষ কথা বলে এবং মাতৃভাষা হিসেবে বিশ্ব-ভাষা তালিকায় বাংলার অবস্থান পঞ্চম। ইউনেস্কো কর্তৃক এক জরিপে পৃথিবীর সুমিষ্ট ভাষা প্রথম হয়। ভারতে এই মিষ্টি ভাষাটির অবস্থান দ্বিতীয়। বাংলা ভাষায় সর্বাধিক মানুষ কথা বলে বাংলাদেশ এবং ভারতের পশ্চিমবঙ্গ প্রদেশে। সাহিত্যে ভারতের একমাত্র নোবেল পুরস্কার প্রাপ্ত শ্রী রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাংলা ভাষার লেখক ছিলেন। ভারতবর্ষের প্রথম অস্কার পাওয়া পরিচালক এবং সাহিত্যিক সত্যজিৎ রায়ও বাংলাভাষী ছিলেন। ভারতীয় অন্যতম জনপ্রিয় ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি টলিউডে বাঙলাতে অসংখ্য আর্টফিল্ম কিংবা বাণিজ্যিক সিনেমা বাংলাতে তৈরি হচ্ছে।

 বাংলা ভাষায় কথা বলা মানুষের সংখ্যা প্রতিনিয়ত বাড়ছেই। আর এই নান্দনিক ভাষাকে অনেকে নতুন করে শিখতেও চাচ্ছে। মিলেনিয়াল বা এই শতাব্দীতে জন্মগ্রহণ করা তরুণদের মধ্যেও কিন্তু বাংলা প্রীতি খুব একটা কম নেই। বয়স যেটাই হোক, নিজের ভাষায় মনের ভাব প্রকাশের আনন্দই অন্যরকম। আর সেটা শুধু বই পুস্তক আর কাগজে কলমে সীমাবদ্ধ হবে এরকমটা ভাবার কোন মানে হয় না। বর্তমান প্রযুক্তির যুগে বাংলা ভাষাকে আমরা আমাদের প্রতিদিনের লাইফ-স্টাইলে চাইলেই ব্যবহার করতে পারি।  আমাদের সোশ্যাল মিডিয়া থেকে শুরু করে ইনস্ট্যান্ট ম্যাসেজিং অ্যাপ্স্‌ গুলোতে প্রতিদিনকার আপডেট দেয়া, বার্তা পাঠানো কিংবা চ্যাট করা এসব কিছুতে আমাদের মনের সম্পূর্ণ ভাব বা অনুভূতি প্রকাশে বাংলা ভাষার কোন বিকল্প নেই। আর তাই বাংলা ভাষায় লিখতে বা চ্যাট করতে আমাদের হাতে থাকা স্মার্টফোনে বাংলা কিবোর্ড থাকা খুবই জরুরী। আর সে কিবোর্ডে যদি অন্তর্ভুক্ত থাকে আর্টিফিশিয়াল ইনটিলিজেন্স তাহলে তো কথাই নেই। আর তাই তরুণদের মধ্যে বাংলা ভাষা চর্চার জন্য বহু ফিচারস সমৃদ্ধ ‘বাংলা কীবোর্ড’ অন্যতম একটি মাধ্যম। 

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা

বাংলা কীবোর্ডে যুক্ত আছে ‘এ আই’ বেসড প্রযুক্তি, ফলে এর কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ইউজারের ব্যবহারের উপর ভিত্তি করে কিবোর্ডটি পরের শব্দের সাজেশন বা পরামর্শ দিবে। আর প্রেডিকশন মুড যোগ করার ফলে বাংলা কিবোর্ড তার ইউজারের অনুমতি নিয়ে আগের লিখার স্টাইল মনে রেখে একটি শব্দের পর অন্য একটি শব্দ প্রেডিক্ট করবে। যার ফলে ইউজারদের প্রোডাক্টিভিটি বেরে যাবে বহু গুনে।

ইনপুট সিস্টেম

বাংলা কিবোর্ডে রয়েছে বেশ কয়েকটি ইনপুট সিস্টেম। ফলে যে কেউ এই কিবোর্ডে ইংরেজিও টাইপ করতে পারবে আলাদা কিবোর্ড ব্যবহার করার কোন প্রয়োজন নেই। কিবোর্ডটিতে ফোনেটিক ইনপুট সিস্টেম রয়েছে তাই কিবোর্ড ব্যবহার করার জন্য নতুন করে এর ব্যবহার জানারও প্রয়োজন নেই, ইংরেজিতে টাইপিং করলেই আউটপুট বাংলাতে হয়ে যাবে, যে ফিচারটিকে অনেকে বাংলিশও বলে। এছাড়া ন্যাটিভ বাংলা ইনপুট তো রয়েছেই। Bengali keyboard App

অটো-কারেক্ট ফিচার

এর অটো-কারেক্ট ফিচার, ব্যাবহারের উপর ভিত্তি করে সাধারণ ভুলগুলো ঠিক করে নিবে যার ফলে বানান নিয়ে আমাদের তরুণদের খুব একটা চিন্তা করতে হবে না। আর এর তিন স্তরের অটো-কারেক্ট ফিচার ব্যবহারকারী তার ইচ্ছামতো পরিবর্তন কিংবা বন্ধও করে নিতে পারে।

ভয়েস টাইপিং

কিবোর্ডটিতে ভয়েস টাইপিং ফিচার যোগ করা রয়েছে ফলে কেউ চাইলেই শুধুমাত্র কথা বলার মাধ্যমে টাইপিং করতে পারবে তাই কেউ চাইলেই তার বিশাল হোমওয়ার্ক কিংবা ইমেইল ভয়েস টাইপিং ফিচার দিয়ে অনায়াসেই শেষ করে ফেলতে পারবে নিখুঁত ভাবে। আর ভয়েস টাইপিং এ বাংলার সাথে ইংরেজিও টাইপ করা যাবে খুব সহজেই।

ভাষা

কিবোর্ডটিতে বাংলা ও ইংরেজি ভাষার ইনপুট তো আছেই এছাড়াও অসংখ্য ইন্ডিক ভাষা ইন্সটল করার অপশন রয়েছে। তার মানে আপনি বাইল্যাঙ্গুয়াল বা দোভাষী হলেও আপনার কোন চিন্তা বা ঝামেলা নাই। একই কিবোর্ড দিয়ে আপনি আপনার সকল টাইপিং করে ফেলতে পারবেন।

স্টিকার

বাংলা কিবোর্ডে রয়েছে অসংখ্য স্টিকার প্যাক যা এবং স্টিকার গুলোতে শুধু হিন্দি আর ইংরেজি নয় যুক্ত করা আছে মাতৃভাষা বাংলারও স্টিকার। যার ফলে আপনার স্টিকার ব্যবহার করতে অন্য কোন সফটওয়্যার ব্যবহার না করলেও চলবে আর বাংলায় সত্যিকার থাকা মানেই ইমশোন প্রকাশে আর কোন বাধাই থাকবে না। এছাড়া কিবোর্ডটিতে ইমোজিস আর ‘জি আই এফ’ দেয়ার সুবিধা তো রয়েছেই। ফলে বন্ধুদের যখন তখন ক্ষুদ্র এনিমেশন পাঠাতে পারবেন বাংলায় টাইপিং করার সাথে সাথেই।

থিম

বাংলা কিবোর্ডে রয়েছে অসংখ্য থিম ইনক্লুডেড।

তাই একই রকম জিনিসে যারা বোর হয়ে যান তাদের চিন্তার কোন কারণই নেই। যখন খুশি তখন আপনি আপনার ইচ্ছা অনুযায়ী বদলে ফেলবেন থিম কিংবা নিজেই তৈরি করে ফেলতে পারবেন নিজের থিম।

জেসচার ফিচার

বাংলা কিবোর্ডে রয়েছে জেসচার বা আঙুল দিয়ে সংকেতে, দ্রুত অনেক শব্দ লিখার ফিচারও এখানে যোগ করা হয়েছে তাই চ্যাটিং হবে এখন খুবই দ্রুত।

এছাড়াও কিবোর্ডটিতে অবতার(Avatar) থেকে শুরু করে আরো অসংখ্য ফিচারস রয়েছে এবং প্রতিনিয়ত নতুন ফিচারস যোগ করা হচ্ছে। বাঙালি ভাষা চর্চা চলমান রাখতে এবং বাংলা ভাষার ব্যবহার সহজ রাখাই অ্যাপটির মূল উদ্দেশ্য।

বাংলা কিবোর্ড এবং এর অসংখ্য ফিচার সম্বন্ধে আরো জানতে এখনই ডাউনলোড করে ফেলুন বাংলা কিবোর্ড। আর নিজের ভাষায় নিজের অনুভূতি প্রকাশ করুন ইচ্ছামতো।

2 Comments

  1. breekelly vicki June 15, 2021

Add Comment

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুনলাইক ফেসবুক
+ +