হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার না করার পরামর্শ টেলিগ্রাম প্রধানের

হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার না করার পরামর্শ টেলিগ্রাম প্রধানের

জনপ্রিয় মেসেজিং অ্যাপ টেলিগ্রামের প্রতিষ্ঠাতা পারেল ডুরভ হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার না করার পরামর্শ দিয়েছেন। তিনি দাবি করেন হোয়াটসঅ্যাপ এনক্রিপটেড না। এই প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করলে ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য হ্যাকাররা হাতিয়ে নিতে পারে।

সম্প্রতি টেলিগ্রামে দেওয়া এক পোস্টে পারেল ডুরভ লিখেছেন, ‘হোয়াটসঅ্যাপ নিরাপদ নয় এবং নজরদারি করার জন্য এই অ্যাপ ব্যবহার করা হয়। হোয়াটসঅ্যাপে খুব খারাপ এনক্রিপশন রয়েছে এবং সে কারণে হ্যাকাররা আপনার ফোনে থাকা ডেটা সহজেই ব্যবহার করতে পারে।’

গত সপ্তাহে নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে এমন মন্তব্য করেন দুরভ। তার মতে, একজন হ্যাকার কেবল একটি বিদ্বেষপূর্ণ ভিডিও পাঠিয়ে অথবা ভিডিও কল থেকে আপনার ডিভাইস নিয়ন্ত্রণ করতে পারে।

হোয়াটসঅ্যাপে সমস্যার কারণে একটি ফিক্স প্রকাশ করেছে, তবে দুরভ বলেছেন যে তাতে সাহায্য পাবার সম্ভাবনা কম। তিনি ২০১৭, ২০১৮, ২০১৯ এবং ২০২০ সালে হোয়াটসঅ্যাপ একই ধরনের সমস্যা সমাধান করার প্রমাণ দিয়েছেন।

telegramএই প্রসঙ্গে তিনি জোর দিয়ে বলেন যে এই বিষয়গুলোর পুনরাবৃত্তির অর্থ হল হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করা নিরাপদ নয় এবং এই ত্রুটিগুলি সর্বদা হ্যাকারদের আকৃষ্ট করবে কারণ এ জন্যেই ইউজারদের ডিভাইসের মধ্যে প্রবেশ করা তাদের পক্ষে সহজ।

তিনি আরও উল্লেখ করেন যে এই কারণে তিনি বহু বছর আগে সমস্ত মেসেজিং প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করা বন্ধ করেছেন।

বিতর্ক সৃষ্টি করতে পারে এমন প্রশ্নগুলোর উত্তর দিতে গিয়ে তিনি বলেন যে টেলিগ্রাম ইতিমধ্যেই ৭০০ মিলিয়নেরও বেশি সক্রিয় ইউজার রয়েছে। তবে তিনি মানুষকে টেলিগ্রামে ব্যবহার করতে জোর দিচ্ছেন না।

তিনি বলেন, ‘হোয়াটসঅ্যাপ ১৩ বছর ধরে নজরদারি অ্যাপ হয়ে এসেছে, তাই যে কোনও মেসেজিং প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করুন, হোয়াটসঅ্যাপ থেকে দূরে থাকুন’।

তবে এই প্রথমবার যে ডুরভ এমন দাবি করছেন তা নয়। সারা বিশ্বে ২ বিলিয়নেরও বেশি ইউজার, মেটার মালিকানাধীন এই প্ল্যাটফর্মকে উপলব্ধি করতে হবে যে কোন ফাঁক-ফোকর লক্ষ লক্ষ ইউজারের তথ্যের উপর ঝুঁকি তৈরি করতে পারে। কিন্তু এটাও ঠিক যে হোয়াটসঅ্যাপ এই দুইটি মেসেজিং অ্যাপ থেকে অনেক মাইল এগিয়ে যা সমস্ত ইউজারদের জন্য ব্যবহার করা সহজ।

Add Comment